৭ম-সপ্তম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের কর্ম ও জীবনমুখী এসাইনমেন্ট উত্তর ও সমাধান ২০২১

2
1137

৭ম-সপ্তম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের কর্ম ও জীবনমুখী এসাইনমেন্ট উত্তর ও সমাধান ২০২১

৭ম শ্রেণীর কর্ম ও জীবনমুখী অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ২০২১, ৭ম শ্রেণীর অ্যাসাইনমেন্ট বাংলা উত্তর ১ম সপ্তাহের, ৭ম শ্রেণির বাংলা এসাইনমেন্ট সমাধান, ৭ম শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট বাংলা উত্তর ২০২১,  সপ্তম শ্রেণির বাংলা এসাইনমেন্ট ২০২১, সপ্তম শ্রেণির বাংলা এসাইনমেন্ট এর উত্তর, সপ্তম শ্রেণির এসাইনমেন্ট উত্তর বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়, সপ্তম শ্রেণির এসাইনমেন্ট উত্তর বাংলা ২০২১

সকল শ্রেণির ষষ্ঠ,৭ম,৮ম,৯ম ৫ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট উত্তর সমাধান ২০২১

৫ম/পঞ্চম সপ্তাহের ৬ষ্ঠ/৭ম/৮ম/৯ম শ্রেণির এসাইনমেন্ট ২০২১

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় ছাত্র ও ছাত্রী বন্ধুরা, কেমন আছেন সবাই? আসা করি সবাই ভালো আছেন। বরাবরের মতো, প্রতি সপ্তাহে আপনার জন্য  ৬ষ্ঠ,৭ম,৮ম,৯ম শ্রেণির এসাইনমেন্ট শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশের পরে, আমরা অবিলম্বে ষষ্ঠ,৭ম, অষ্টম, নবম শ্রেণির উত্তর ২০২১ দিচ্ছি। আজকের পোস্টে, আমি তোমাদের ষষ্ঠ,৭ম,৮ম,৯ম শ্রেণির ৫ম এসাইনমেন্ট প্রশ্ন ও উত্তর শেয়ার করে থাকি।



৭ম-সপ্তম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের কর্ম ও জীবনমুখী এসাইনমেন্ট উত্তর

৭ম শ্রেণীর কর্ম ও জীবনমুখী অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ২০২১, ৭ম শ্রেণীর অ্যাসাইনমেন্ট বাংলা উত্তর ১ম সপ্তাহের, ৭ম শ্রেণির বাংলা এসাইনমেন্ট সমাধান, ৭ম শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট বাংলা উত্তর ২০২১,  সপ্তম শ্রেণির বাংলা এসাইনমেন্ট ২০২১, সপ্তম শ্রেণির বাংলা এসাইনমেন্ট এর উত্তর, সপ্তম শ্রেণির এসাইনমেন্ট উত্তর বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়, সপ্তম শ্রেণির এসাইনমেন্ট উত্তর বাংলা ২০২১

সভ্যতার বিকাশে কায়িক ও মেধা শ্রম উভয়ই গুরুত্বপূর্ণ



উত্তর:- মানুষ তার শারিরীক শক্তি দিয়ে কোনাে কাজে যে শ্রম দেয় তাই শারীরিক বা কায়িক শ্রম বলে। সৃষ্টিকর্তা আমাদের শারীরিক কাজকর্ম করার জন্য বিভিন্ন অঙ্গ – প্রতঙ্গ দান করেছেন। এ সব ব্যবহার করে যে শ্রম দেয়া হয় তাই শারিরীক বা কায়িক শ্রম। জীবনে বেঁচে থাকার জন্য শারীরিক বা কায়িক শ্রমের গুরুত্ব অপরিসীম। 

কায়িক শ্রমের ভূমিকা: কায়িক শ্রমের মাধ্যমে সভ্যতাকে গড়ে তুলেছেন, কামার, কুমার, তাঁত , জেলেসহ আরও অনেকে। এরা নিজ নিজ কাজ করেন বলেই আমরা আরামদায়ক জীবন যাপন করতে পারি। কৃষক যদি কষ্ট করে ফসল না ফলাতেন তাহলে সবাই কী খেয়ে বেঁচে থাকত? যদি দরজিরা পােশাক তৈরি না করতাে। তবে সবাই কী পরিধান করত? তাই বলা যায়, বর্তমান সভ্যতার মূলে কায়িক শ্রম খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

মেধাশ্রম:- চিন্তা, ভাবনা, জ্ঞান ইত্যাদি ব্যবহার করে যখন কোনাে কাজ করা হয়, তাকে মেধাশ্রম বলে।

যেমন: এরকম একটি কাজ হলাে ইতিহাস লেখা।  ইতিহাস হলাে মানব সমাজে ঘটে যাওয়া ঘটনার সারসংক্ষেপ। রাজনৈতিক, সামাজিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক বিভিন্ন দিক সারসংক্ষেপ। রাজনৈতিক, সামাজিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক বিভিন্ন দিক বিবেচনা করে ইতিহাস লেখা হয়। যা সহজ নয় অনেক মেধা খাটিয়ে তা লিখতে হয়। আবার, টিভিতে যখন সংবাদ দেখি, যে সংবাদকর্মী এই সংবাদটি তৈরি করে, তাকে সারাদিন থাকতে হয় ফিল্ডে। অনেক কষ্ট করতে হয়। 

তারপর সংবাদ প্রস্তুত করতে হয়, প্রস্তুতি শেষে স্ক্রিনে। স্ক্রিনের সংবাদে সারাদিনের পরিশ্রম কিন্তু মেধাশ্রম। এছাড়াও যেমন, গল্প কবিতা লেখা, ছবি আঁকা, বিদ্যুৎ পাখা আবিস্কার, এসব মেধা শ্রমের মাধ্যমেই। এসব শ্রম ঘাম ঝড়াচ্ছে না ঠিকই তবুও করছে অক্লান্ত শ্রম। আমাদের মস্তিষ্ক খেটেই চলেছে অবিরাম। উপরের আলােচনা থেকে বলা যায়, সভ্যতার বিকাশে মেধাশ্রম ও কায়িক শ্রম উভয়েই গুরুত্বপূর্ণ।

Previous article৮ম-অষ্টম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট উত্তর ও সমাধান ২০২১
Next article৭ম- সপ্তম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট উত্তর ও সমাধান

2 COMMENTS